তনু হত্যার বিচারের দাবিতে বার্লিনে মানববন্ধন

b8c55973601dc13ca9c452d340c20548-Pic-4সরাফ আহমেদ, জার্মানি……সোহাগী জাহান তনু হত্যাকাণ্ডসহ সকল নারী ধর্ষণ-হত্যার বিচার ও নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করার দাবিতে বার্লিনে কাইজারিন অগ্যস্টো এ্যালিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৪ এপ্রিল সোমবার বিকেলে কাইজারিন অগ্যস্টো এ্যালিতে এই সমাবেশের আয়োজন করেন বার্লিনপ্রবাসী বাংলাদেশিরা। সমাবেশে বিপুলসংখ্যক নারীসহ শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি অংশ নেন।
সমাবেশের উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন, আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, বাংলাদেশে নারী ও শিশু নির্যাতন এবং হত্যার ক্রমবর্ধমান মাত্রা যেন দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। সম্প্রতি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী, সংস্কৃতিকর্মী সোহাগী জাহান তনুকে হত্যার ঘটনা আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে, বাংলাদেশে সবচেয়ে নিরাপদ বলে বিবেচিত সেনানিবাস অঞ্চলেও নারী নিরাপদ নয়। সোহাগী জাহান তনুর ঘটনা কোনো বিচ্ছিন্ন দুর্ঘটনা নয়। গত এক বছরে নারী ধর্ষণের হার বেড়েছে শতকরা ৯.৪ ভাগ এবং সরকারি হিসাবে প্রায় ১৬ হাজার ১০২ জন নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। তাদের অনেককে করা হয়েছে হত্যা। এর মধ্যে ৩ বছরের শিশু থেকে ৬০ বছরের বৃদ্ধ নারীও রয়েছেন। সংখ্যালঘু, আদিবাসী, কর্মজীবী ও দরিদ্র পরিবারের নারীরাই এই সহিংসতার প্রধান শিকার।
তারা আরও জানান, নারীর প্রতি সহিংসতাকে প্রতিরোধ করার জন্য অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেওয়ার দায়িত্ব রাষ্ট্রের কর্মকর্তা–কর্মচারীদের। নারীর প্রতি সহিংসতার ক্রমবৃদ্ধি এটাই প্রমাণ করে যে, রাষ্ট্রের আমলাতন্ত্রের ভূমিকা অকার্যকর। এই অক্ষমতার দায়ভার প্রশাসনে নিয়োজিত কর্মকর্তা কর্মচারীরা এড়াতে পারেন না। প্রচলিত আমলাতান্ত্রিক ব্যবস্থায় আইনের ফাঁক ফোকর ও দীর্ঘসূত্রতার ব্যাপার যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছে ঘুষ ও স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে অপরাধীকে সুযোগ দেওয়া এবং পরবর্তী অপরাধের সাহস ও পরোক্ষ অনুমতি দেওয়া।
বাংলাদেশের সর্বস্তরের মানুষ নারীর প্রতি সহিংসতায় আজ বিক্ষুব্ধ। নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলন ক্রমাগত শক্তিশালী হচ্ছে, নতুন প্রজন্ম বিশেষ করে ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণ আমাদের আশাবাদী করে যে, সমাজের ভেতরে আজও মানবিক প্রগতিশীল ধারা অব্যাহতভাবে ধর্ষকামী পৈশাচিকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে। প্রবাসেও আমরা এই সহিংসতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে চাই।
মানববন্ধন ও সমাবেশ শেষে আয়োজকদের পক্ষ থেকে বার্লিনপ্রবাসী নূরী খান, খালিদ নোমান ও মামুন আহসান খান বার্লিনের বাংলাদেশ দূতাবাসে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

 
 

Send Comment